ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয় গুলো কি কি

 ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা কেন হয় এবং বাচ্চাদের মুখের ঘা এর চিকিৎসা  কি কি তা নিয়ে আজকে আমি বিস্তারিত আলোচনা করব।বাচ্চাদের মুখের ঘা এর ওষুধ কি তা জানতে এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

পেজ কনটেন্ট সূচিপত্র:ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয়।ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা।

বাচ্চাদের মুখে ঘা কেন হয় ?

মুখের ঘা কে অ্যাপথাস আলসার বলা হয়। বাচ্চাদের মুখে ঘা হওয়া একটি সাধারণ বিষয়। সাধারণত বড়দের তুলনায় বাচ্চাদের মুখেই ঘা বেশি হয়ে থাকে। বড়দের ও হয় মাঝে মধ্যে । তবে বাচ্চাদের ই বেশি হয়ে থাকে।প্রায় সব বাচ্চাদের ই এই সমস্যা হয়ে থাকে।আর মুখে ঘা হলে বাচ্চারা কোনো খাবার খেতে চায় না । খাবার খাওয়ার সময় তাদের মুখে অনেক জ্বালা পোড়া করে। বাচ্চারা এ সময় অনেক কান্নাকাটি করে। বিভিন্ন কারণে ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হয়ে থাকে। চলুন তাহলে দেখে নেই বাচ্চাদের মুখে ঘা কেন হয় ?

বাচ্চাদের মুখে ঘা কেন হয় :

  • অতিরিক্ত মসলাযুক্ত খাবার খেলে ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হতে পারে।
  • জাঙ্ক ফুড বা বাইরের খাবার খেলে ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হতে পারে।
  • বাচ্চার পেটে যদি এইচ পাইলোরি বা হেলিকোব্যাক্টর নামক পাইলোরি ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি থাকে।
  • বাচ্চাদের চা কফি খাওয়ালে ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হতে পারে।
  • অনেক সময় কিছু কিছু ওষুধ এর কারণেও ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হতে পারে।
  • ভিটামিন এবং খনিজ লবণ এর অভাবেও ঘা হতে পারে।
  • বাচ্চাদের মুখে ঘা কেন হয়  তা আমরা জানলাম । এবার তাহলে জেনে নিই ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয় গুলো কি কি।

ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয়।

বাচ্চাদের মুখে ঘা এর জন্য সব মায়েরা ই কিছু না কিছু চিকিৎসা করান। আবার কিছু কিছু মায়েরা হতাশায় ভোগে। কিভাবে তার বাচ্চার ঘা সারিয়ে তুলবে।এটা নিয়ে হতাশায় ভোগার কিছুই নেই ।এটা খুবই একটি স্বাভাবিক বিষয়।

বাচ্চাদের মুখের ঘা এর চিকিৎসা আপনি বিভিন্ন ভাবে করাতে পারেন।যেমন: ঘরোয়া উপায়, ঔষধের মাধ্যমে অথবা জেল ব্যবহার করে। যেকোনো একটি উপায় অবলম্বন করেই আপনি আপনার বাচ্চার ঘা সারিয়ে তুলতে পারেন।

ঘরোয়া উপায়ে,বাচ্চাদের মুখের ঘা এর ওষুধ অথবা বাচ্চাদের মুখের ঘা এর জেল যে পদ্ধতি ই আপনি অবলম্বন করেন না কেন খেয়াল রাখতে হবে যে বাচ্চার মুখের ঘা এর কোন উন্নতি হচ্ছে কি না।

প্রেগন্যান্ট হওয়ার লক্ষণ | প্রেগন্যান্ট হওয়ার প্রাথমিক লক্ষণ

যদি ছোট বাচ্চাদের মুখের ঘা একটি সাধারণ ব্যাপার। তবুও এটি নিয়ে অবহেলা করলে বাচ্চার পরবর্তীতে অনেক সমস্যা হয়ে যেতে পারে।তাই চেষ্টা করবেন খুব দ্রুত যেন ঘা সারিয়ে তুলতে পারেন। আর বাচ্চা কে ঔষধ খাওয়ালে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী খাওয়াতে হবে।

ঘরোয়া উপায়ে বাচ্চাদের মুখের ঘা এর চিকিৎসা করুন।ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা।

মুখের ঘা সংক্রামক রোগ নয়। আপনি চাইলে বাড়িতে বসেও বাচ্চাদের মুখের ঘা এর চিকিৎসা  করাতে পারেন।ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয় গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হলো ঘরোয়া পদ্ধতি।

হ্যা সত্যিই ঘরোয়া উপায়ে আপনি আপনার বাচ্চার মুখের ঘা সারিয়ে তুলতে পারেন। ঘরোয়া উপায় এর মধ্যে কয়েকটি উপকরণ হলো:দই, মধু , হলুদ , নারকেল বা নারকেল এর তেল,ঘি,মিছরির গুঁড়া , পোস্ত দানা ,অ্যালোভেরা,যস্টিমধু, আইসক্রিম।

দই 

এক্ষেত্রে চেষ্টা করবেন টক দই ব্যাবহার করতে। কারণ টকদই তে রয়েছে ল্যাকটিক এসিড যা ক্ষত স্থান এর ব্যাকটেরিয়া দমন করতে সাহায্য করবে ‌।ক্ষত স্থানে কিছু সময় টকদই আলতো করে লাগিয়ে দিন। এটি ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা দূর করতে সাহায্য করবে।

মধু

মধু একধরনের প্রাকৃতিক ঔষধ। অনেক রোগের  উপকার পাওয়া যায় মধুতে। মধু যেকোনো ধরনের ক্ষত সারাতে সাহায্য করে। আপনার শিশুর ঘা এর ওপর মধু আলতো করে কয়েক বার লাগিয়ে দিন।এটি বাচ্চাদের মুখের ঘা এর জেল গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি ওষুধ। তবে আপনার বাচ্চার বয়স যদি ১ বছরের কম হয়ে থাকে তাহলে মধু ব্যবহার করা বিপদজনক হতে। আর যদি ১ বছরের বেশি হয় তাহলে কোনো সমস্যা নেই।

হলুদ

মধুর মতো হলুদ ও হচ্ছে আরেকটি প্রাকৃতিক উপাদান যা ক্ষত নিরাময়ে সাহায্য করে। এটি ক্ষত স্থান এর জীবনু নষ্ট করে। হলুদের সাথে মধু মিশিয়ে ক্ষত স্থান এ লাগিয়ে দিন। এটি  ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা দূর করতে সাহায্য করবে।

নারকেল বা নারকেল এর তেল

মুখের ঘা দূর করতে নারকেল এর গুরুত্ব অপরিসীম। আপনি আপনার বাচ্চার ক্ষত স্থানে নারকেলের তেল লাগিয়ে দিন। অথবা নারকেলের পানি তাকে খেতে দিতে পারেন বা কুলকুচি করাতে পারেন। এতে করে বাচ্চার ক্ষত নিরাময় হবে 

ঘি 

বাচ্চাদের মুখের ঘা এর চিকিৎসা  করাতে ঘরোয়া উপায় গুলোর মধ্যে আরেকটি অন্যতম উপকরণ হলো ঘি।ঘি আপনার শিশুর ক্ষত নিরাময়ে সাহায্য করবে এবং ক্ষত কারণে সৃষ্ট ব্যাথাকে প্রশমিত করবে। ফলে আপনার শিশু আরামবোধ করবে।ঘি ব্যবহারে আপনার শিশু খুব দ্রুত আরামবোধ করবে।

মিছরির গুঁড়া,পোস্ত দানা।

অনেক সময় বাচ্চাদের শরীরের উষ্ণতা বাড়লেও মুখে ঘা হয়। এজন্য মিছরির গুঁড়া,পোস্ত দানা ও নারিকেল কোড়ানো একসাথে ব্লেন্ড করে ছোট ছোট বড়ির মতো বানিয়ে বাচ্চাদের খেতে দিতে পারেন। এটি বাচ্চারা চকলেট হিসেবে খাবে পাশাপাশি তাদের ঘা সেরে ওঠবে।

অ্যালোভেরা 

অ্যালোভেরা অনেক রোগের চিকিৎসায় সহায়তা করে। বাচ্চাদের মুখের ঘা নিরাময়েও অ্যালোভেরা ভূমিকা পালন করে। এটি বাচ্চাদের মুখের ঘা এর জেল।আপনার শিশুর ক্ষত স্থানে অ্যালোভেরা লাগিয়ে দিন । এতে করে বাচ্চার ক্ষত নিরাময় হবে এবং বাচ্চা ব্যাথা থেকে মুক্তি পেতে পারে।

যস্টিমধু

বাচ্চাদের মুখের ঘা এর ওষুধ গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি ঘরোয়া ওষুধ হলো যস্টিমধু।যস্টি মধু পানিতে ভিজিয়ে রাখুন ।সেই পানি দিয়ে আপনার বাচ্চার প্রতিদিন ৩/৪ বার করে কুলকুচি করাবেন।যদি আপনার কাছে যস্টিমধুর গুঁড়া থাকে তাহলে গুঁড়ার সাথে হলুদ অথবা মধু মিশিয়ে ক্ষত  স্থানে লাগিয়ে দিন। এতে করে ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা নিরাময় হবে।

আইসক্রিম

মুখের ঘা নিরাময়ের আইসক্রিম এর কোনো ভূমিকা নেই। তবে বাচ্চাদের আইসক্রিম দি বাচ্চা কিছু টা স্বস্তি বোধ করে এসময়। এছাড়াও ব্যাথার জায়গায় ঠান্ডা কিছু দিলে ব্যাথা কিছু টা প্রশমিত হয়।

বাচ্চাদের মুখের ঘা এর ওষুধ গুলো কি।ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয়।

বাচ্চাদের মুখে ঘা কেন হয় ,ঘা এর জন্য ঘরোয়া পদ্ধতি গুলো কি তা আমরা এতক্ষণ জানলাম । এবার আমরা জানব বাচ্চাদের মুখের ঘা এর ওষুধ গুলো কি গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হলো ওষুধ সেবনের মাধ্যমে সারিয়ে তোলা।

আপনার বাচ্চার মুখে ঘা হলে নিকটস্থ ভালো ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান। আপনার বাচ্চার মুখে কোন ধরনের ঘা হয়েছে তা শনাক্ত করে ডাক্তার ওষুধ দিবেন।এই ওষুধ সেবনের মাধ্যমেই আপনার বাচ্চা সুস্থ হয়ে উঠবে।

ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয় গুলো কি কি

বাচ্চাদের মুখের ঘা এর চিকিৎসা  করানো খুব জরুরী । এটি নিয়ে অবহেলা করলে পরবর্তীতে বেশি সমস্যা হবে।তাই যত দ্রুত সম্ভব ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে।

বাচ্চাদের মুখের ঘা এর ওষুধ গুলোর মধ্যে কয়েকটি ওষুধ হলো :Bongel cream,Voidin mouthwash, Riboflavin।এই ওষুধ গুলো বাজারে পাওয়া যায়  । এগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি আপনার বাচ্চার মুখের ঘা এর জন্য করতে পারেন।

তবে আমি বলব, না জেনে আন্দাজে বাচ্চা কে ওষুধ খাওয়াবেন না। ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ খাওয়াবেন।

বাচ্চাদের মুখের ঘা এর জেল।ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয়।

ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয় গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হলো বাচ্চাদের মুখের ঘা এর জেল লাগানো। ঘরোয়া উপায় বা ঔষধ খাওয়ানো ছাড়া আরেকটি উপায় হচ্ছে বাচ্চাদের মুখের ঘা এর জেল লাগানো।

ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা দূর করতে আপনি জেল ব্যবহার করাতে পারেন। এতে আপনি ভালো ফলাফল পাবেন। জেল ব্যবহার এর ফলে মুখের ঘা দূর হবে।ঘা এর কারণ সৃষ্ট জ্বালা পোড়া প্রশমিত হবে,ক্ষত স্থান তাড়াতাড়ি সেরে যাবে।

প্রেগন্যান্ট হওয়ার লক্ষণ | প্রেগন্যান্ট হওয়ার প্রাথমিক লক্ষণ

Benozocaine gels,Carmellose sodium যুক্ত জেল বাচ্চার ক্ষত স্থানে লাগাবেন। এতে করে বাচ্চার ঘা সেরে যাবে। পাশাপাশি ঘা এর কারণে সৃষ্ট জ্বালা পোড়া ও কমবে। নিয়মিত এই জেল ব্যবহার করতে হবে।

শেষ আলোচনা:বাচ্চাদের মুখের ঘা এর চিকিৎসা ।

বন্ধুরা, আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করেছি ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা হলে করণীয়,ছোট বাচ্চাদের মুখে ঘা ,বাচ্চাদের মুখে ঘা কেন হয় ,বাচ্চাদের মুখের ঘা এর চিকিৎসা, বাচ্চাদের মুখের ঘা এর ওষুধ, বাচ্চাদের মুখের ঘা এর জেল ইত্যাদি নিয়ে।

আশাকরি , পোস্টটি পড়ে আপনি অনেক উপকৃত হবেন। আমার দেখানো পদ্ধতি গুলো অবলম্বন করে আপনার বাচ্চার মুখের ঘা সারিয়ে তুলতে পারেন।

বেশি খারাপ অবস্থা হওয়ার আগেই চেস্টা করবেন তাতে এই ঘা সারিয়ে তুলতে পারেন। আজকের এই পোস্টে কোথাও কিছু বুঝতে অসুবিধা হলে পোস্টটি মনোযোগ সহকারে আবার পড়ুন অথবা কমেন্ট করে জানিয়ে দিন কোথায় বুঝতে অসুবিধা হয়েছে। এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। আজকে এই পর্যন্তই।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url