ছোট বাচ্চাদের খাওয়ার রুচির ঔষধ | ছোট বাচ্চাদের রুচির ঔষধের নাম

ছোট বাচ্চাদের সাধারণত অনেক সময় দেখা যায় খেতে অরুচি ধরে। হাজার চেষ্টা করেও ছোট বাচ্চাদের খাওয়ানো যায় না। আজকের আর্টিকেলটি তে আমরা শেয়ার করব ছোট বাচ্চাদের রুচির ঔষধ, ছোট বাচ্চাদের খাবারের রুচি আনতে কি করা যায় ঘরোয়া উপায়ে এবং কেন ছোট বাচ্চাদের খাবারে অরুচি ধরে সেই সম্পর্কিত বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

সূচিপত্র: ছোট বাচ্চাদের খাওয়ার রুচির ঔষধ

ছোট বাচ্চাদের খাওয়ার রুচি কমে যায় কেন?

জিঙ্কের ঘাটতি

খাবারের হজম করার জন্য পেটে প্রয়োজনীয় প্রধান উপাদানগুলির মধ্যে একটি হল হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড। এটি ক্ষুধা অনুভূতি ট্রিগার করতে সাহায্য করে। জিঙ্ক মূলত এই অ্যাসিড উৎপাদনের জন্য দায়ী। তাই যদি আপনার সন্তানের ক্ষুধা কম থাকে, তাহলে তার জিঙ্কের ঘাটতিতে সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তার খাবারের তালিকায় একটু পরিবর্তন আনার মাধ্যমে সহজেই এর ভারসাম্য ফিরিয়ে আনা যাবে। মুরগি,কাজু বাদাম, গমের তুষ, কুমড়োর বীজ এবং জিঙ্কসমৃদ্ধ অন্যান্য জিনিস খাওয়ানোর মাধ্যমে এর স্তরকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে সহায়তা করে। তাই ছোট বাচ্চাদের রুচি কমে যাওয়ায় চিন্তিত না হয়ে এই বিষয়ের দিকে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন।

কোন অসুখ থেকে উঠার পর 

আপনার ছোট বাচ্চা যদি সাধারণত ভালোই খায় এবং দেরীতে খাওয়ার খারাপ অভ্যাসগুলি দেখাচ্ছে, তবে সম্ভবত সে ভালো বোধ করছে না বা কেবল কিছু অসুস্থতা থেকে পুনরুদ্ধার করছে। অসুস্থ হলে, সমস্ত শারীরিক প্রক্রিয়ায় আঘাত পড়ে। 
এটির ফলাফল হয় রুচি কমে যাওয়া। অসুস্থতা ঠিক হয়ে যাওয়ার পরেও, ওষুধ ও পরের প্রভাবগুলির কারণে পাচক প্রক্রিয়া স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যাওয়ার জন্য আরও কিছু সময় নিতে পারে, সেইসাথে খাবারস্বাদে তিতা লাগতে পারে। খাবার খেতে তিতা লাগে সাধারণত জ্বর হলে।তাই তখন ছোট বাচ্চাদের স্বাভাবিক ভাবেই খাওয়ার রুচি কমে যেতে পারে।

অনুপযুক্ত হজমের পরিবেশ

শক্তি আমাদের পেটে খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ এবং হজম করার জন্য প্রয়োজন হয়। ছোট বাচ্চাদের পেটে যখন বদহজম, গ্যাস, পেট ফাঁপা বা এই ধরনের কিছু হয় এই শক্তি একটি আঘাতের মধ্যে দিয়ে যায়। খুব কম ক্ষুধার পরিবেশের কারণে অসুস্থতাও ক্ষুধামন্দের কারণ হতে পারে।

একই জিনিসের অনেকটা পরিমাণ

সমস্ত খাবারে সংযম রাখতে হবে এবং সঠিক টাইপের খাবার দিতে হবে। যদি আপনার ছোট বাচ্চা খাবার হিসাবে গোটা শস্যের প্রচুর পরিমাণ খেতে চায় তবে এগুলি তাকে দীর্ঘ সময়ের জন্য পূর্ণ রাখতে পারে। গোটা শস্যে ফাইবার থাকে এবং সম্পূর্ণরূপে হজম করার জন্য বেশ কিছু সময় প্রয়োজন। 
একই সময়ে, যদি আপনার বাচ্চা গরুর দুধের প্রতি আগ্ৰহ না হয় অথবা এমনকি খাওয়ানো দুধের চেয়েও বেশি পরিমাণে খায় তবে এটি খাওয়ার রুচির ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে, যার ফলে সে ক্ষুধার্ত অনুভব করে না। তাই এই দিকে ও খেয়াল রাখতে হবে।

ছোট বাচ্চাদের খাওয়ার রুচির ঔষধ

ছোট বাচ্চাদের রুচির ঔষধ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোন খাওয়ানো ঠিক হবে না। তবে এখানে কয়েকটি  মাধ্যম আছে যা আপনাকে আপনার ছোট বাচ্চার খাওয়ার রুচি বৃদ্ধি করতে সহায়তা করবে। চলুন সেগুলো দেখে নিই।

ছোট বাচ্চাদের খাওয়ার রুচি বাড়ানোর উপায় কি?

ব্রেকফাস্ট

আশা করি এটা ভালোভাবে জানা আছে যে ব্রেকফাস্টটি দিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খাবার। ব্রেকফাস্ট পাচনক্রিয়া বৃদ্ধি করে এবং দিনের কাজের জন্য শরীরকে প্রস্তুত করে তুলে। আপনার ছোট বাচ্চার খাওয়ার রুচি বৃদ্ধির জন্যে একটি সুস্থ ব্রেকফাস্ট অবশ্যই অবশ্যই রাখবেন।

খাবার আধা ঘন্টা আগে পানি খাওয়ান

খাবার দেবার ৩০ মিনিট আগে পানি খাওয়ালে সেটি পাচনতন্ত্রকে সক্রিয় করে তোলে। সকালেও ঘুম থেকে ওঠার পর একই জিনিসটি করতে পারেন মানে আপনার ছোট বাচ্চাকে পানি খাওয়াতে হবে, কারণ তাতে শরীর দীর্ঘ সময়ের জন্যে জলযোজিত থাকে। এই মূল নীতিগুলি স্পষ্ট ভাবে ছোট বাচ্চাদের রুচি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।তাই অবশ্যই এটা ফলো করবেন।

খাবার হিসাবে দুধ খাওয়াবেন না

আমরা প্রায় অনেকেই জানি যে দুধ একটি সম্পূর্ণ খাবার, এটি একটি খাবার হিসাবে পরিবেশন করা উচিত নয়। দুধের অতিরিক্ত, যখন এপেটাইসার হিসাবে খাওয়া হলে সেটি পরবর্তী খাবারের জন্য রুচি হ্রাস করে। ছোট বাচ্চাদের রুচি বৃদ্ধি করতে দুধের পরিবর্তে পনির বা দইয়ের মতো অন্যান্য খাবার খাওয়াতে পারেন।

খেলাধুলা ও ব্যায়াম 

এটি একটি সুপরিচিত সত্য যে শারীরিক পরিশ্রম খাওয়ার রুচি বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে। আরো ছোট বাচ্চাদের রুচি ঞ বাড়াতে বেশি বেশি খেলতে দিন শিশুকে।এতে করে কোন রুচির ঔষধ সেবন করতে হবে না।

বাচ্চাকে তার প্রিয় খাবারটি মাঝে মাঝে খেতে দিন

খাবারের ব্যাপারে শিশুরা মেজাজ দেখতে পারে। তারা এমন কিছু খেতে পারবে না যা তারা পছন্দ করে না তা যতই পুষ্টিকর হোক না কেন। সুতরাং, একটি সুস্থ ক্ষুধা তৈরি করার জন্য, তাদের প্রিয় খাবারের তালিকা রাখুন। এগুলি তাদের খাওয়ার দিকে আকৃষ্ট করবে। এবং খাওয়ার রুচি বৃদ্ধি করতে সহায়তা করবে। সবসময় এক খাবার না‌ দিয়ে ছোট বাচ্চাদের একটু আলাদা টেস্ট এর খাবার দিতে পারেন।এতে করে ছোট বাচ্চাদেরও খেতে আগ্রহ প্রকাশ করবে।
তো এই ছিল আজকের আর্টিকেলটি তে ছোট বাচ্চাদের রুচির ঔষধ সম্পর্কে আশা করি বুঝতে ও জানতে পেরেছেন কিভাবে ছোট বাচ্চাদের রুচি বৃদ্ধি করতে হবে। আজকের মতো এতোটুকুই আবার আসব নতুন কিছু নিয়ে ততদিন পর্যন্ত ভালো থাকবেন ধন্যবাদ।16056
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url